ঢাকা, , ৫ ডিসেম্বর, ২০২০

যানজট কমবে, কর্মচাঞ্চল্য বাড়বে: প্রধানমন্ত্রী

Thursday,26 October 17 12:49:36

খুলে গেল মগবাজার-মৌচাক উড়ালসড়ক। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধনের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এই উড়ালসড়ক যানজট নিরসনে ভূমিকা রাখবে। সময় বাঁচাবে। কর্মচাঞ্চল্য বাড়বে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উড়ালসড়কের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। উড়ালসড়ক নির্মাণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান তিনি। উড়ালসড়কসহ সব সড়ক ব্যবহারে যত্নবান হতে ও ট্রাফিক নিয়ম মেনে চলার জন্য আহ্বান জানান।

প্রথম আলো ফাইল ছবিঢাকায় গাড়ির সংখ্যা বাড়ছে বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, আধুনিক যুগে আর্থিক ক্ষমতা থাকলে মানুষ গাড়ি কিনছে। ফলে যানজট বাড়ছে। মগবাজার-মৌচাক উড়ালসড়কে গাড়ি দ্রুত চলবে। চলাচলের সুবিধার জন্য এই উড়ালসড়কের কিছু জায়গায় নকশা পরিবর্তন করা হয়েছে।

উড়ালসড়কটি তিন ভাগে করা হয়েছে। একটি অংশ সাতরাস্তা-মগবাজার-হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল। এটা নির্মাণ করেছে নাভানা কনস্ট্রাকশন। গত বছরের মার্চে এই অংশ যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়। গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর নিউ ইস্কাটন থেকে মৌচাক পর্যন্ত উড়ালসড়কের এক দিক খুলে দেওয়া হয়। এই অংশ নির্মাণ করেছে তমা কনস্ট্রাকশন। তৃতীয় ধাপে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন (বিএফডিসি) মোড় থেকে কারওয়ান বাজার অংশ যানবাহন চলাচলে খুলে দেওয়া হয় ১৭ মে। এই অংশও তৈরি করেছে নাভানা কনস্ট্রাকশন। এখন খুলে দেওয়া হলো উড়ালসড়কের মৌচাক-মালিবাগ-শান্তিনগর-রাজারবাগ-মগবাজার অংশ। এটা নির্মাণ করেছে তমা কনস্ট্রাকশন।

চার লেনের এই উড়ালসড়ক ছয়টি মোড় অতিক্রম করেছে। এগুলো হলো সাতরাস্তা, বিএফডিসি, মগবাজার, মৌচাক, শান্তিনগর ও মালিবাগ মোড়। এর মধ্যে মগবাজার, মালিবাগ ও কারওয়ান বাজারে রেললাইন অতিক্রম করেছে এই উড়ালসড়ক প্রকল্প।

পাঠকের মন্তব্য