ঢাকা, , ২ ডিসেম্বর, ২০২০

মুনাফা কমেছে ইসলামিক ফাইন্যান্সের

Wednesday,25 October 17 12:59:21

পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত ইসলামিক ফাইন্যান্সের মুনাফা চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে আগের বছরের তুলনায় কমেছে। মঙ্গলবার প্রকাশিত কোম্পানিটির আর্থিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিটির প্রকাশিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি বছরের প্রথম নয় মাসে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) ইসলামিক ফাইন্যান্সের কর পরবর্তী মুনাফা হয়েছে ১১ কোটি ২৫ লাখ ৮৬ হাজার টাকা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১১ কোটি ৩২ লাখ ৮১ হাজার টাকা। অর্থাৎ চলতি বছরের নয় মাসে কোম্পানিটির মুনাফা বেড়েছে ৬ লাখ ৯৫ হাজার টাকা।

নয় মাসের মতো চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকেও (জুলাই-সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির মুনাফা বেড়েছে। জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়ে এই আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির কর পরবর্তী মুনাফা হয়েছে ১ কোটি ৪১ লাখ ১৪ হাজার টাকা। যা ২০১৬ সালের একই সময়ে ছিল ৩ কোটি ৭৬ লাখ ৫৩ হাজার টাকা।

এদিকে চলতি বছরের জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর সময়ে ইসলামিক ফাইন্যান্সের শেয়ার প্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৮৩ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৮৪ পয়সা। অর্থাৎ চলতি বছরের প্রথম নয় মাসে আগের বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি মুনাফা কমেছে ১ পয়সা।

আর চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি মুনাফা হয়েছে ১০ পয়সা। যা ২০১৬ সালের একই সময়ে ছিল ২৮ পয়সা। অর্থাৎ আগের বছরের তুলনায় চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে ইসলামিক ফাইন্যান্সের শেয়ার প্রতি মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে ১৮ পয়সা।

এদিকে মুনাফা কমলেও চলতি বছরে কোম্পানিটির সম্পদ মূল্যও কিছুটা বেড়েছে। চলতি বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর শেষে ইসলামীক শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৩ টাকা ৩১ পয়সা। যা ২০১৬ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর শেষে ছিল ১১ টাকা ৭০ পয়সা।

তবে কমেছে অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো। চলতি বছরের জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর সময়ে শেয়ার প্রতি নিট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) দাঁড়িয়েছে ৪ টাকা ১৮ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৮ টাকা ৭৭ পয়সা।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, ইসলামিক ফাইন্যান্সের মোট শেয়ারে ৩৬ দশমিক ১৩ শতাংশ রয়েছে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের হাতে। বাকি শেয়ারের মধ্যে ৩৩ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ আছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে আছে ৩০ দশমিক ৭৯ শতাংশ শেয়ার।

 

পাঠকের মন্তব্য