ঢাকা, , ৫ ডিসেম্বর, ২০২০

লরেন্স আর উইদারস্পুনও মুখ খুললেন

Tuesday,24 October 17 11:51:06

হলিউডে যেন দিনবদলের হাওয়া লেগেছে। একটা সময় খ্যাতিতে ভাটা পড়ার ভয়ে অনেক অভিনেত্রীই যৌন হয়রানির বিষয়গুলো নিয়ে মুখ খুলতেন না। এখন আর কোনো ভয় অভিনেত্রীদের দমিয়ে রাখতে পারছে না। তাঁদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া ভয়ংকর সব হয়রানির অভিজ্ঞতা তাঁরা নিজেরাই একে একে ফাঁস করছেন। আর এর মধ্য দিয়ে হলিউডে চাকচিক্যের ভিড়ে ঢেকে থাকা দগদগে ক্ষতগুলো বেরিয়ে আসছে। এবার নিজেদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া যৌন হয়রানি নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী রিজ উইদারস্পুন ও জেনিফার লরেন্স। গত সোমবার রাতে মার্কিন সাময়িকী এল-এর আয়োজনে ‘ওম্যান ইন হলিউড’ অনুষ্ঠানে নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা জানান উইদারস্পুন ও লরেন্স।

রিজ উইদারস্পুন বলেন, যখন তাঁর বয়স ১৬, তখন এক পরিচালক তাঁকে যৌন হয়রানি করেন। কিন্তু সে সময় তাঁকে বোঝানো হয়েছিল, কাজ পাওয়ার জন্য এমনটা হওয়াই স্বাভাবিক! তাই ওই হয়রানি রিজকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে দিলেও কখনো মুখ খোলেননি তিনি। তিনি বলেন, ‘অনেক রাত আমি ঘুমাতে পারিনি। চিন্তা করতে কষ্ট হতো, কথা বলতে কষ্ট হতো, মানুষকে বুঝতে কষ্ট হতো আমার। জীবনের সবচেয়ে নিঃসঙ্গ আর বিষণ্নতায় ভরা সময় ছিল তখন। কিন্তু বেকার হয়ে যাওয়ার ভয়ে সেই কষ্টের কথা প্রকাশ করতে পারতাম না তখন। তবে গত এক সপ্তাহ অনুভব করছি, আমি একা নই।’

একই অনুষ্ঠানে অভিনেত্রী জেনিফার লরেন্সও নিজের অভিজ্ঞতার কথা প্রকাশ করেন। বলেন, শুধু পুরুষ দ্বারাই যে নারীরা হয়রানির শিকার হন, ব্যাপারটা তেমন নয়। তিনি এক নারী এজেন্ট দ্বারা লাঞ্ছিত হয়েছেন। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে এক নারী কাস্টিং এজেন্ট লরেন্সকে দুই সপ্তাহে ৭ পাউন্ড ওজন কমাতে বলেন। তা ছাড়া বিবস্ত্র হয়ে অন্য নারীদের সঙ্গে ছবি তুলতেও বাধ্য করেন। পরে বিষয়টি নিয়ে অস্কারজয়ী এই অভিনেত্রী এক প্রযোজকের কাছে নালিশ করলে সেই প্রযোজকও লরেন্সকে ইঙ্গিতপূর্ণ কথা শোনান।

পাঠকের মন্তব্য