ঢাকা, , ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

শুটিংয়ে বেঁচে গেল ৪০ লাখ টাকা

Wednesday,25 October 17 12:12:59

বাংলাদেশের সিনেমার শুটিং হলো ভারতের হায়দরাবাদে। আর তাতে নাকি প্রযোজকের বেঁচে গেছে ৪০ লাখ টাকা! ‘বেপরোয়া’ নামের এই সিনেমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান আবদুল আজিজ গতকাল রোববার বিকেলে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আগে যেখানে ৪০ দিন শুটিং করতে হতো, এখন আমরা মাত্র ৩০ দিনে শেষ করতে পারছি। তাতে খরচ বেঁচে গেছে অন্তত ৪০ লাখ টাকা।’

শুরুতে ‘বেপরোয়া’ সিনেমার বেশির ভাগ শুটিং হওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশে। পরিকল্পনা অনুযায়ী এফডিসির ৪ নম্বর ফ্লোরে শুটিং শুরু হয়। কিন্তু বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবারের বাধার মুখে শুটিং স্থগিত করে কর্তৃপক্ষ। সিনেমার শুটিং স্পটে পুলিশও এসেছিল। বাধ্য হয়ে ভারতের বাংলা ছবির পরিচালক রাজা চন্দ শুটিং স্থগিত করেন। এরপর কয়েক দিনের বিরতি। এ মাসের গোড়ার দিকে আবার শুরু হয় ‘বেপরোয়া’ সিনেমার শুটিং। এবার আর বাংলাদেশে নয়, পরিচালক সিনেমার শুটিং শুরু করেছেন ভারতের হায়দরাবাদের রামোজি ফিল্ম সিটিতে।

‘বেপরোয়া’ সিনেমার প্রযোজক আবদুল আজিজ বলেন, ‘সিনেমার প্রতি ভালোবাসা থেকেই প্রযোজনায় আসি। কিন্তু শুটিং করতে গিয়ে বাধার মুখে পড়ে বসে থাকার তো কোনো মানে হয় না। এফডিসিতে শুটিং করতে গিয়ে “বেপরোয়া” সিনেমার টিম যে অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছে, তা মোটেও সুখকর ছিল না। আমার সিনেমার পরিচালক একজন ভারতীয় নির্মাতা। শুটিং স্পটে পুলিশ আসার কারণে তাঁর কাছে আমার দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। আমাদের এফডিসি কিন্তু আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আজ আমি যে টাকা হায়দরাবাদে খরচ করছি, তা তো এফডিসির তহবিলে যেত।’

হায়দরাবাদে ‘বেপরোয়া’ সিনেমার শুটিংয়ে কলাকুশলীদের মাঝে রোশান
আবদুল আজিজ আরও বলেন, ‘আমার নতুন সিনেমার শুটিং দেশের বাইরে করার কারণে বাংলাদেশের প্রোডাকশন বয়, লাইটম্যান, ট্রলিম্যান, রূপসজ্জাশিল্পী থেকে শুরু করে আর অন্যান্য কলাকুশলী সবাই পারিশ্রমিক থেকে বঞ্চিত হয়েছে। গত কয়েক মাসে এফডিসিতে কয়টি নতুন সিনেমার শুটিং হয়েছে? অথচ আমরা টানা শুটিং করতে চেয়েছিলাম। যা হোক, আমি বলতে চাই, কোনো রেষারেষিতে না গিয়ে সবাইকে কাজ করার সুযোগ দিতে হবে। এতে চলচ্চিত্রেরই উন্নতি হবে। তা না হলে এভাবে দিনের পর দিন দেশের টাকা বাইরে চলে যাবে।’

এরই মধ্যে এফডিসির নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমির হোসেনের সঙ্গে দেখা করেছেন এই প্রযোজক। তিনি তাঁকে এফডিসিতে শুটিং করতে না পারার কারণের কথা জানিয়েছেন। এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাঁকে আশ্বাস দিয়েছেন, সামনে যাতে এই ধরনের পরিস্থিতিতে আর পড়তে না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখবেন তিনি। এফডিসিতে সব পরিচালক, প্রযোজক ও শিল্পী যাতে নির্বিঘ্নে কাজ করতে পারেন, সে পরিবেশ নিশ্চিত করবেন বলে জানিয়েছেন।

‘বেপরোয়া’ সিনেমার প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন রোশান ও ববি। আরও আছেন তারিক আনাম খান, নিমা রহমান, কাজী হায়াৎ, শহিদুল আলম সাচ্চু, সাদেক বাচ্চু, রেবেকা, নানা শাহ, শিবা সানু প্রমুখ।

 

পাঠকের মন্তব্য